কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধ করে ডার্ক চকলেট

চকলেট তৈরির মূল উপাদান কোকোয়া বিনে আছে প্রচুর পরিমাণ এন্টি অক্সিডেন্ট। এন্টি অক্সিডেন্ট আমাদের শরীরের জন্য দারুণ উপকারি।

ডার্ক চকোলেট পৃথিবীতে সবচাইতে উৎকৃষ্ট অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টের উৎস। ডার্ক চকোলেট হৃদপিণ্ডের রোগ হবার প্রবণতা কমিয়ে আনে এবং কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে পারে। মূলত কোকো গাছের বীজ থেকে চকোলেট তৈরি হয়। 

ডার্ক চকোলেট অত্যন্ত পুষ্টিকর। উচ্চ রক্ত চাপ কমিয়ে,ইনসুলিন সংবেদনশীলতা বৃদ্ধি করে। হৃদপিণ্ডের বিভিন্ন সমস্যা প্রতিরোধ করে, হৃদপিণ্ডকে সচল রাখে।

ডার্ক চকলেটে প্রচুর পরিমাণে সক্রিয় জৈব উপাদান রয়েছে । চকলেট তৈরির মূল উপাদান কোকোয়া ফ্লাভিনয়েডে ভরপুর। এই উপাদানটি ত্বককে সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মি থেকে রক্ষা করে।

চকলেট খেলে নিমেষে মন ভালো হয়ে যায়। ব্যাপারটা শুধু যে আমাদের মস্তিষ্কের একটা অনুভূতি তাই নয়, চকলেটে থাকা পলিফেনল বিষণ্ণতা ও দুশ্চিন্তা দূর করে মুড ভালো করতে সাহায্য করে।

চকলেট আমাদের মস্তিষ্কের সক্ষমতা বাড়ায়। নিয়মিত চকলেট খেলে আমাদের শেখার সক্ষমতা বাড়ে। এটা দীর্ঘস্থায়ি স্মৃতি ও ক্ষণস্থায়ী স্মৃতি দুটোই সংরক্ষণে সাহায্য করে।

দৈনিক ২৫ গ্রাম ডার্ক চকলেট (চিনি ছাড়া) খেলে ৮ সপ্তাহ পর রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *