ক্যান্সার নিয়ে সুখবর আসছে

আগামী দিনগুলোতে ক্যান্সার নিয়ে যে সুখবর আসছে

একটি সবজিতেই প্রতিরোধ হবে ক্যান্সার ও ডায়াবেটিস!

ক্যান্সার নিয়ে যে সুখবর আসছে
Cancer BD

ক্যান্সার নিয়ে যে সুখবর আসছে , বেগুন একটি অতি পরিচিত ও সহজলভ্য সবজি। এটি প্রায়ই আমাদের খাদ্য তালিকায় থাকে। তবে যখন স্বাস্থ্য রক্ষা বা ওজন কমানোর বিষয় বিবেচনা করা হয় তখন বেগুনকে ধরা হয় না। অথচ ১০০ গ্রাম বেগুনে মাত্র ২৫ ক্যালোরি থাকে। খাদ্যআঁশে ঠাঁসা এই সবজি খেলে ওজন বাড়ার সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে!

এছাড়াও বেগুনে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি, ভিটামিন বি সিক্স, রিবোফ্লাভিন, নায়াসিন এবং থায়ামিন।

এগুলো আমাদের দেহের ‘মেটাবোলিজম’ সক্রিয় রাখে। ফলে খাবার ভালো হজম হয় এবং শরীরে মেদ জমে না।

অ্যালার্জির সমস্যা না থাকলে আরও অনেক কারণেই বেগুন নিয়মিত খেতে পারেন যে কেউ। এই সবজি আমাদের শরীরের ডায়াবেটিস ও ক্যান্সারসহ নানা রোধ প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা পালন করে। 

বেগুনের বিভিন্ন গুণাগুণ

ক্যান্সার প্রতিরোধ: বেগুনে ফাইটোকেমিকল অ্যান্থোসায়ানিনস থাকে, যার কারণে বেগুনের রং এত চমৎকার দেখায়। এটা আমাদের হৃদপিণ্ডের রক্ষণাবেক্ষণের কাজও করে। এছাড়া বেগুনে থাকা ক্লোরোজেনিক অ্যাসিড শরীরের জন্য ক্ষতিকর কোলেস্টরেল দমিয়ে রাখে। আর এই অ্যান্থোসায়ানিনস এবং ক্লোরোজেনিক অ্যাসিড ক্যান্সার প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা পালন করে।

ডায়াবেটিস প্রতিরোধ: বেগুনে উচ্চ মাত্রায় আঁশ এবং কম পরিমাণে দ্রবণীয় শর্করা থাকে, ফলে ডায়াবেটিস প্রতিরোধের কাজেও বেগুন ভূমিকা রাখতে পারে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি: বেগুন একটা ক্ষারধর্মী খাবার। এটি পরিপাকতন্ত্রের অম্ল ও ক্ষারের ভারসাম্য ঠিক রাখার পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা সচল রাখে।

ক্যান্সার নিয়ে যে সুখবর আসছে

ক্যান্সার একটি মরণব্যাধি। দিন দিন বিশ্বব্যাপী এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। আগের তুলনায় বেশি মানুষ এখন এই রোগে মারা যাচ্ছে। ২০১৮ সালে সারা পৃথিবীতে ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে ৯৬ লক্ষ মানুষের মৃত্যু ঘটেছে

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, ২০৩০ সালের মধ্যে ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে প্রতি বছর এক কোটি ৩০ লক্ষ মানুষ মারা যাবে।

কিন্তু সুখবর হলো, ক্যান্সার আক্রান্ত হবার পরও সুস্থ হয়ে ফিরে আসার সংখ্যাও বাড়ছে প্রতি বছর।

সেই সঙ্গে বিজ্ঞানীরাও প্রতি বছর ক্যান্সার শনাক্ত ও চিকিৎসার নতুন নতুন উদ্ভাবন নিয়ে আসছেন প্রতিবছর।

আসুন জেনে নিই, সামনের দিনে সবচেয়ে সম্ভাবনাময় কয়েকটি উদ্ভাবন সম্পর্কে—


ক্যান্সার নিয়ে সুখবর আসছে ক্যান্সার কি আমাদের রক্তে থাকে?

ক্যান্সার যদি প্রাথমিক পর্যায়ে শনাক্ত করা যায়, তবে এতে মারা যাবার সম্ভাবনা কমে যায়।

চিকিৎসকেরা বলছেন, প্রাথমিক অবস্থায় ক্যান্সার শনাক্ত করার ইঙ্গিত পাওয়া যেতে পারে মানুষের রক্তে।

কানাডার প্রিন্সেস মার্গারেট ক্যান্সার সেন্টারের গবেষকেরা ক্যান্সার আক্রান্ত ব্যক্তির রক্তের নমুনায় জেনেটিক কোন পরিবর্তন হয়েছে কিনা তা বের করার নতুন এক পন্থা উদ্ভাবন করেছেন।

এতে নির্দিষ্ট কোন জিন কাজ করছে কিনা বা কোনটি হঠাৎ কাজ বন্ধ করেছে কিনা, সেটি বোঝা যাবে।

এর ফলে ক্যান্সার উপস্থিতি শনাক্ত করা সম্ভবই হবে না কেবল, বরং সেটি কোন ধরণের ক্যান্সার তাও জানা যাবে।

যখন পেনিসিলিন নিতে হয়

শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে দিয়েই ক্যান্সার আক্রান্ত কোষকে ধ্বংস করার প্রক্রিয়া এখন খুবই জনপ্রিয়।

২০১৮ সালে জিম অ্যালিসন মেডিসিনে নোবেল পেয়েছেন তার উদ্ভাবিত নতুন প্রক্রিয়া যাকে ‘পেনিসিলিন মূহুর্ত’ নামে সবাই চেনে তার জন্য।

এই প্রক্রিয়া ক্যান্সার চিকিৎসার মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে বলে বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

এর মূল কথা হচ্ছে, আমাদের রোগপ্রতিরোধ ব্যবস্থাকে এমনভাবে সাজানো হবে যাতে এটি শরীরের তৈরি হওয়া ক্যান্সার কোষগুলোকে অগ্রাহ্য করবে আর একই সময়ে শরীরে তৈরি হওয়া অ্যান্টিবডিগুলো সেসব কোষ ধ্বংস করতে থাকবে।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার এই পদ্ধতিতে উপকার পেয়েছেন

সূত্র: বিবিসি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *