মাশরুম ক্যান্সার ও টিউমার বৃদ্ধিতে বাঁধা দেয়

দৈনন্দিন জীবনে খাদ্যতালিকায় মাশরুম রাখা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।

এটি মাংসল ছত্রাক থেকে হয়, যা আদিকাল থেকে সাধারণভাবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে

মাশরুম একটি এন্টিঅক্সিডেন্ট ধারণকারী উচ্চতর খাদ্য উপাদান যা স্তন ক্যান্সার, উচ্চ কোলেস্টেরল, হৃদরোগ, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস এবং মেদ প্রতিরোধে সাহায্য করে।

মাশরুমের প্রোটিন অতি উন্নতমানের। গর্ভবতী মহিলাদের মাশরুম রক্তস্বল্পতার দূর করে।১০০ গ্রাম শুকনো মাশরুমে ২৫-৩৫ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে। মাশরুমে শস্য, ডাল, শাক সবজি হতে অনেক বেশি প্রোটিন । সূর্যের আলোর সংস্পর্শে যে মাশরুম উৎপন্ন হয় তাতে প্রচুর ভিটামিন ডি থাকে ।

ক্যান্সার ও টিউমার প্রতিরোধে মাশরুম বেশ উপকারী। নিয়মিত মাশরুম খেলে ব্রেস্ট ক্যান্সার ও প্রোস্টেট ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি কম থাকে। মাশরুমের ফাইটোকেমিক্যাল টিউমারের বৃদ্ধিতে বাঁধার সৃষ্টি করে।  

মাশরুমের ফাইবার বা আঁশ পাকস্থলী দীর্ঘক্ষণ ভরা রাখতে সাহায্য করে।

মাশরুম ঠাণ্ডা জনিত রোগ প্রতিরোধ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *